জানা-অজানা

মুখ ধোয়ার আগে-পরে

  প্রতিনিধি ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ , ৬:২৬:৫৭ প্রিন্ট সংস্করণ

 

জিনাত শারমিন :
সুন্দর ত্বকের জন্য সঠিক নিয়মে মুখ ধোয়া জরুরি। এতে ত্বকও সুস্থ থাকবে

সকালে পানির ঝাপটা মুখে পড়লেই, ঘুম ঘুম ভাব দৌড়ে পালায়। আমরা অনেকটাই প্রস্তুত হয়ে যাই সারা দিনের জন্য। মুখের ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক হয়ে যাওয়া, তেলতেলে হয়ে যাওয়া, ব্রণের আবির্ভাব, বলিরেখা, বয়সের ছাপ—ঠিকমতো মুখ ধুলে এসব সমস্যাকে শত হাত দূরে রাখা যায়। সুস্থ ও সুন্দর ত্বকের জন্য মুখ ধোয়া খুবই জরুরি। জেনে নেওয়া যাক, কখন, কীভাবে আর কতবার ধোব।

দিনে কখন, কতবার মুখ ধোব
এটা নির্ভর করে ত্বকের ধরন আর আবহাওয়ার ওপর। আমাদের দেশের আবহাওয়ায় সাধারণভাবে তিন থেকে পাঁচবার মুখ ধোয়া যায়। শীতপ্রধান দেশে এতবার মুখ না ধুলেও চলে। তবে যেকোনো ত্বকে সকালে ঘুম থেকে উঠে আর রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে-দুই বেলা মুখ ধোয়া জরুরি। এ ছাড়া ভারী মেকআপ নিলে, ঘেমে গেলে, শরীরচর্চা করার পর, বাইরে ধুলাবালু থেকে ঘরে ফিরে, কোনো অনুষ্ঠান থেকে ফিরে, দিনের রান্নাবান্না শেষ করে ত্বক পরিষ্কার করা উচিত। এ ছাড়া অফিসে থাকলে সারা দিনে দুবার মুখ ধোয়া যেতেই পারে।

মুখ ধোয়ার কায়দাকানুন
ত্বক সুস্থ থাকবে পরিষ্কার রাখলে।ত্বক সুস্থ থাকবে পরিষ্কার রাখলে।
আমরা হাত দিয়ে মুখ ধুই। তাই মুখ ধোয়ার আগে সেই হাত ভালোভাবে ধুয়ে নেওয়া জরুরি। কেননা, সারা দিনে আমরা মুঠোফোন, ল্যাপটপ, টাকা, কি-বোর্ড, লিফটের বোতামসহ নানা জায়গায় হাত রাখি। যেগুলো জীবাণুর আখড়া। সেখান থেকে মুখের ত্বকের মতো সংবেদনশীল জায়গায় সহজেই হতে পারে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ। দ্বিতীয়ত, কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধোয়া ভালো। পানি বেশি গরম হলে আবার সমস্যা। এতে ত্বক প্রাথমিকভাবে বেশি শুষ্ক হয়ে যাবে। পরবর্তী সময়ে ত্বক বেশি তৈলাক্ত হয়ে যেতে পারে। তৃতীয়ত, মুখে মেকআপ ব্যবহার করলে আগে সেটা মেকআপ ক্লিনজার, গ্লিসারিন, পেট্রোলিয়াম জেলি বা ময়েশ্চারাইজার দিয়ে ভালোভাবে তুলে ফেলতে হবে। তারপর ধুতে হবে। মুখে সাবান ব্যবহার না করাই ভালো। কেননা, বেশির ভাগ সাবানের ক্ষার ত্বকের প্রাকৃতিক তেল শুষে নেয়। ত্বকের পিএইচের ভারসাম্য নষ্ট করে দেয়। ফলে ত্বক শুষ্ক এবং আরও বেশি সংবেদনশীল হয়ে পড়ে। ত্বকের সঙ্গে মানানসই ফেসওয়াশ বা ক্লিনজার ব্যবহার করা যেতে পারে। সপ্তাহে দুবার স্ক্রাবার ব্যবহার করে ত্বক গভীর থেকে পরিষ্কার করুন। এতে ত্বকে জমে থাকা মৃত কোষ বের হয়ে আসবে। ত্বকের রক্ত চলাচলও ভালো থাকবে।

ত্বকের সঙ্গে মানানসই ফেসওয়াশ বা ক্লিনজার দিয়ে ভালোভাবে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। খেয়াল রাখুন, মুখের কোথাও যেন ফেনা জমে না থাকে। মুখ ধোয়া হয়ে গেলে নরম পরিষ্কার কাপড় দিয়ে আলতো করে মুখে চেপে ধরে মুখ মুছতে হবে। নতুন কাপড় ব্যবহারের ক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে, এটির তন্তু যেন ত্বকে আঁচড় না ফেলে। মুখ ধোয়ার পর তুলায় টোনার লাগিয়ে মুখে বুলিয়ে নিতে পারেন। ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে পারেন। রাতের বেলায় বাইরে থেকে ঘরে ফিরে ঘরে বানানো ফেসপ্যাক লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ভালোভাবে মুখ ধুয়ে ফেলতে পারেন। তখন আর ফেসওয়াশ বা অন্য কিছু ব্যবহারের দরকার নেই। রাতে ময়েশ্চারাইজার বা জেল লাগিয়ে রাখলে সেটি সারা রাত ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করবে। ফলে ঘুম থেকে উঠে আপনি যখন মুখ ধুতে যাবেন, তখনো ত্বক থাকবে কোমল।

Print Friendly, PDF & Email

আরও খবর

Sponsered content