জেলার খবর

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রী হলে গুইসাপ, দুই শিক্ষার্থী অজ্ঞান

  প্রতিনিধি ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২ , ১:৪৮:৩২ প্রিন্ট সংস্করণ

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ হাসিনা আবাসিক হলের কক্ষের ভেতরে গুইসাপ দেখে আতঙ্কিত হয়ে জ্ঞান হারিয়েছেন ওই হলের দুই শিক্ষার্থী৷

শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১টায় শেখ হাসিনা হলের ১০০৩ নং কক্ষে একটি গুইসাপ প্রবেশ করে। রুমে অধ্যয়নরত এক আবাসিক শিক্ষার্থীর পায়ের নিচ দিয়ে তার চৌকির নিচে ঢুকে পড়ে সাপটি। পরক্ষণে সাপের এমন উপস্থিতে সেই শিক্ষার্থী অজ্ঞান হয়ে পড়ে৷

পরে জানা যায় সাপটি গুই সাপ৷ মিনিট ছয়ের বেশি সময় সাপটি ঐ কক্ষে অবস্থান করে, পরে হলের সিকিউরিটি গার্ডের চেষ্টায় সাপটি কক্ষের বাহিরে চলে যায়৷

সাপটি বের হওয়ার কিছুক্ষণ পর আরেক শিক্ষার্থী ভয়ে অজ্ঞান হয়ে পড়ে৷ তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী৷

পরবর্তীতে তৎক্ষণাত তাদেরকে শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয় ৷ চিকিৎসকদের দুইঘণ্টা পর্যবেক্ষণে কিছুটা সুস্থ হলে পরবর্তীতে হলে নিয়ে আসা হয়৷ একজন সুস্থ হলেও অন্য একজন অসুস্থ।

হলের নিচতলার শিক্ষার্থীরা জানান, গত দুইমাস আগেও জাত সাপ(কেউটে) হলের নিচতলার মেঝেতে পাওয়া যায়৷ হলের প্রভোস্টকে জানানো হলেও তিনি কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি৷

শিক্ষার্থীরা আরও জানান গত তিন মাস আগে এই জাতীয় সাপ নিচতলার বাথরুমের প্রবেশ করে। তখনও হল কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়৷ তারপরও নিশ্চুপ হল প্রশাসন৷ শিক্ষার্থীদের অভিযোগ- হলের পাশে অনেক ঝোপঝাড় যেটা ঠিকমতো পরিষ্কার করা হয় না৷

এরআগে গত ১৭ই জানুয়ারি শেখ হাসিনা হলের নিচ তলায় চোর প্রবেশ করে এবং বেশ কিছু মূল্যবান জিনিস নিয়ে যায়৷

এ বিষয়ে শেখ হাসিনা হলের প্রভোস্ট রেহেনা পারভীনের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি ৷

বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য ড.মো. ছাদেকুল আরেফিন বলেন, হলের আশেপাশে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নের কাজ চলমান৷ এছাড়াও প্রত্যেক হলের আশেপাশে কার্বলিক এসিডের ব্যবহারের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে৷

Print Friendly, PDF & Email

আরও খবর

Sponsered content

Verified by MonsterInsights