জাতীয়

জনরোষে হল ছেড়ে পালাল ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সেক্রেটারি

  প্রতিনিধি ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ , ৩:১১:৪৭ প্রিন্ট সংস্করণ

অনিয়ম ও দুর্নীতি নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলায় মারধরের স্বীকার হন ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগ সহসভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসী। এ ঘটনায় রাতেই জনরোষের মুখে হল ছেড়ে পালিয়ে যান কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানা।

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাতে জান্নাতুলকে তার হলকক্ষ থেকে টেনেহিঁচড়ে বের করে আনা হয় এবং আপত্তিকর অবস্থার ছবি তোলা হয়। পরে সভাপতি তামান্না ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার আদেশে তাদের সামনেই নির্যাতন করে কলেজ ছাত্রলীগের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী।

ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সিটবাণিজ্যসহ নানান বিষয়ে গণমাধ্যমে কথা বলেন ছাত্রলীগ নেত্রী জান্নাতুল ফেরদৌসী। এরপরই তার ওপর নেমে আসে নির্যাতন। নির্যাতনের ঘটনা জানাজানি হওয়ায় সাধারণ শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। এ সময় তারা ক্যাম্পাসে মিছিল বের করে। এ ঘটনায় রাতের আঁধারে জনরোষের মুখে হল ছেড়ে পালিয়ে যান সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানা।

ঘটনার সত্যতা জানতে সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে বারবার ফোন করা হলেও তাদের ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে বঙ্গমাতা হোস্টেলের তত্ত্বাবধায়ক নাজমুন নাহার বলেন, মূল ঘটনা এখনও জানি না। শুনেছি, এটা ছাত্রলীগের ইন্টারনাল বিষয়। দুই পক্ষই ছাত্রলীগের। এ বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

হামলার ঘটনায় রাত ৩টার দিকে ক্যাম্পাসে আসেন ইডেন মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক সুপ্রিয়া ভট্টাচার্য। এ ঘটনায় রাতেই অধ্যক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছেন ছাত্রলীগের একাংশসহ সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

জানা যায়, ৬টি হলের মোট ৩৮টি কক্ষ বর্তমানে রিভার দখলে। প্রতিটি কক্ষে অর্থের বিনিময়ে কমপক্ষে আটজন করে ৩২০ জন ছাত্রীকে রাখছেন রিভা। বিনিময়ে প্রতিমাসে মাথাপিছু সর্বনিম্ন ২ হাজার টাকা করে আদায় করেন তিনি। শুধু সিটভাড়া থেকেই রিভার মাসিক আয় ৫ লাখ ৭৬ হাজার টাকা।

শুধু সিটবাণিজ্য নয়, আগস্ট মাসেই হলের ওয়াইফাই প্রোভাইডারের কাছ থেকে ৩ লাখ টাকা, চারটি হলের ক্যানটিন থেকে ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা চাঁদা আদায় করে কলেজ ছাত্রলীগের এ দুই নেত্রী। এই টাকা ভাগাভাগি নিয়েই নেত্রীদের মধ্যে তীব্র অন্তর্কোন্দল সৃষ্টি হয়।

কলেজের অধ্যক্ষ সুপ্রিয়া ভট্টাচার্য্য সিটবাণিজ্যের বিষয়টি এড়িয়ে যান। তিনি বলেন, সব লেনদেন হয় ব্যাংক ড্রাফটের মাধ্যমে। সিট দখলের সুযোগ নেই।

এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়ের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে বারবার ফোন করা হলেও তিনি কল ধরেননি। পরে তাকে এসএমএস করা হলে তিনি কোনো উত্তরও দেননি।

জানা যায়, পদ লাভের কয়েক মাস পার না হতেই অপকর্মে জড়িয়ে পড়েন রিভা। সাধারণ শিক্ষার্থীদের রুমে গিয়ে বেপরোয়া ক্ষমতা দেখানো, রুম দখলে নিয়ে ছাত্রীদের টেনে ছিঁড়ে বের করে দেওয়া, গলায় পা দিয়ে চেপে ধরাসহ নানা হুমকির অডিও ফাঁস হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। অডিওতে কলেজ অধ্যক্ষের চেয়েও নিজেকে ক্ষমতাধর বলে দাবি করেন রিভা।

তবে অডিও ভাইরালের পর দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন তিনি। কিন্তু ক্ষমা চাওয়ার পরেও শোধরাননি রিভা। অডিও ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার স্বীকারোক্তি আদায় করতে দুই ছাত্রীকে ৬ ঘণ্টা আটকে রেখে নির্যাতন করেন। এসময় তাদের বিবস্ত্র ভিডিও করে তা ভাইরাল করে দেওয়ারও হুমকি দেন রিভা।

উল্লেখ্য, সম্মেলনের প্রায় তিন বছর পর গত ১৩ মে ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়। তামান্না জেসমিন রিভাকে সভাপতি করে কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। বিতর্কিত নেত্রী রিভাকে সভাপতি করায় ওই দিন রাত ৯টা থেকে রাত ২টা পর্যন্ত চলে পদবঞ্চিতদের বিক্ষোভ। এরপরও বহাল তবিয়তে রিভা।

Print Friendly, PDF & Email

আরও খবর

Sponsered content

Verified by MonsterInsights