২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

ভোলায় ৯ ইউপিতে আ.লীগ, তিনটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী

আপডেট: জুন ২২, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

সাব্বির আলম বাবু, ভোলা:
ভোলার চার উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নয়টিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও তিনটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। এর মধ্যে বোরহানউদ্দিন উপজেলার সাচড়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. মহিবুল্লা মৃধা ৭ হাজার ১৯০ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিয়ে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হাতপাখা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৯০৪ ভোট।
উপজেলার গঙ্গাপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রেজাউল করিম রিয়াজ নৌকা প্রতীক নিয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তজুমদ্দিন উপজেলার চাচড়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. আবু তাহের নৌকা প্রতীক নিয়ে ৫ হাজার ৫৯৪ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী রিয়াদ হোসেন হান্নান পেয়েছেন এক হাজার ৪৬৭ ভোট। উপজেলার শম্ভুপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. রাসেল মিয়া মোটরসাইকেলের প্রতীক নিয়ে ৭ হাজার ১৯৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. মাইনুদ্দিন আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৬ হাজার ১৯৫ ভোট।
চাঁদপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী শহিদুল ইসলাম কিরণ অটোরিকশা প্রতীক নিয়ে ১১ হাজার ৬৯২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ফকরুল আলম জাহাঙ্গীর নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪ হাজার ৮৮৭ ভোট।
মনপুরা উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. নিজাম উদ্দিন আনারস প্রতীক নিয়ে ৭ হাজার ৩০২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শাহরিয়ার চৌধুরী দীপক নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৫ হাজার ৩৯২ ভোট। উপজেলার দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অলি উল্লা কাজল নৌকা প্রতীক নিয়ে ৮ হাজার ৮২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হাতপাখা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩১৩ ভোট।
অপরদিকে চরফ্যাশন উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নে কেনো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী না থাকায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচিতরা হলেন- মাদ্রাজ ইউনিয়নে আবদুল হাই, হাজারীগঞ্জ ইউনিয়নে সেলিম হাওলাদার, জাহানপুর ইউনিয়নে নাজিম উদ্দিন হাওলাদার, চরকলমী ইউনিয়নে কাউছার মাস্টার ও এওয়াজপুর ইউনিয়নে খোকন আলম। তবে পাঁচটি ইউনিয়নে সাধারণ সদস্য ও মহিলা সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। জেলার চারটি উপজেলার রিটার্নিং কর্মকর্তারা এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

Print Friendly, PDF & Email
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরিশাল খবর ২৪.কমে প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।