২৩শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

শিরোনাম
কুকরি মুকরিতে ২শ’ জেলে পরিবারের মাঝে বিকল্প কর্মসংস্থান সহায়ক উপকরণ বিতরণ চরফ্যাশনে ইয়াসে ক্ষতিগ্রস্থ ইকোট্যুরিজম প্রকল্প পিকেএসএফ এর মহাব্যবস্থাপকের পরিদর্শন ভোলায় ৯ ইউপিতে আ.লীগ, তিনটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী ইউপি নির্বাচনে নলছিটির ১০ ইউনিয়নেই নৌকা বিজয়ী বানারীপাড়ায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় মুক্তিযোদ্ধা সহ আহত ৬ বরিশালের বানারীপাড়ায় ৭ ইউপিতে নৌকার জয় আমতলী উপজেলার ৬টি ইউপি নির্বাচন চেয়ারম্যান পদে ৪টি আ’লীগ ও ২টি স্বতন্ত্র বিজয়ী সহিংসতা, কেন্দ্র দখল, গুলিবর্ষণ, হতাহত ও ভোট বর্জনের মধ্য দিয়ে ভোলার ৪ উপজেলার ১২ ইউনিয়নের নির্বাচন সম্পন্ন তজুমদ্দিনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর ভোট বর্জন

ভোলার ২৫’শত পরিবারের কাছে পৌঁছেছে রেড ক্রিসেন্টে সোসাইটির ত্রান-সামগ্রী

আপডেট: জুন ৯, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

সাব্বির আলম বাবু, বিশেষ প্রতিনিধি:
ঘূর্ণিঝড় ইয়াসে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার গুলো যেন খাবারের সংকটে কিংবা অসুস্থ হয়ে না পড়ে, সে জন্য বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ফোর্কাস্ট বেইসড আর্লি অ্যাকশন প্রোগ্রামের পক্ষ থেকে উপকূলীয় জেলা ভোলার সাত টি উপজেলার মধ্যে ভোলা সদর উপজেলারঃ ধনিয়, রাজাপুর, রামদাসপুর, মাজেরচর কাচিয়া, উত্তর দিঘলদী। দৌলতখান উপজেলারঃ মেদুয়া, ভবানিপুর।বোরহানউদ্দিন উপজেলার মানিকা, তজুৃমদ্দিন উপজেলার চাচরা ,লালমোহন উপজেলার লর্ডহার্ডিঞ্জ, চরফ্যাশন উপজেলার, মজিবনগর,চর আইচা এবং মনপুরায় মনপুরা ইউনিয়ন ও হাজিরহাট ইউনিয়নের মোট ২৫’শত পরিবারের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে সৃষ্ট ঝড়ো বাতাসে সরকারি হিসাবে ভোলার ৭টি উপজেলায় ১১ হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। এর মধ্যে আংশিক বিধ্বস্ত হয়েছে ৭ হাজার ৭৩০টি ঘর। সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৩ হাজার ৫৭৯টি ঘর। এসব পরিবারের মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত ২৫০০ পরিবারকে আড়াই কেজি চিড়া, এক কেজি চিনি, দুই লিটার পানি, দুটি সাবান, বিস্কুট, সার্জিক্যাল মাস্ক, স্যালাইন, শুকনা খাবারসহ হাইজিন পার্সেল, তারপলিন বিতরণ করা হয়।এই ত্রাণ কার্যক্রম সঠিক ভাবে পরিচালনা করেছিলেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ভোলা জেলা ইউনিটের সম্মানিত সেক্রেটারি জনাব মোঃ আজিজুল ইসলাম ও নির্বাহী আলহাজ্ব ফেরদৌস আহমেদ। ত্রান সামগ্রী মানুষের কাছে পৌছাতে যারা দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করেছিলেন তারা হলেন বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি ভোলা জেলা ইউনিটের যুব প্রধান আদিল হোসেন তপু, প্রশিক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সাদ্দাম হোসেন রনি, যুব সদস্যদের মধ্যে নাঈম হাসান, রহমান মিম,সুমন, নোমান, আল-আমিন সহ আরো অনেকে…ভোলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের সেক্রেটারি মো. আজিজুল ইসলাম বলেন, ‘আর্তমানবতার সেবায় যেকোনো দুর্যোগে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি সবার আগে সাড়া দেয়। এরই ধারাবাহিকতায় ঘূর্ণিঝড় ইয়াসে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো যেন খাবারের সংকটে কিংবা অসুস্থ হয়ে না পড়ে, সে জন্য রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ফোর্কাস্ট বেইসড আর্লি অ্যাকশন প্রোগ্রামের পক্ষ থেকে উপকূলীয় জেলা ভোলার ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। আমরা ভোলা জেলা ইউনিট ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পর্যবেক্ষণ করে তাদের মাঝে এই ফুড প্যাকেজ পৌঁছে দিচ্ছি।ত্রান পেয়ে খুব খুশি হয়েছেন উপকূলীয় এলাকার ঘূর্ণিঝড় ইয়াসে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষে গুলো।প্রতিটি স্পটের ত্রান কার্যক্রম অডিট করেছিলেন কেন্দ্রীয় রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি থেকে প্রেরণকৃত দুজন সদস্য, এনডিআরটি মোঃ সোহাগ ও এনডিডব্লিউআরটি বরকত।

Print Friendly, PDF & Email
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরিশাল খবর ২৪.কমে প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।