১৫ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

শিরোনাম
শ্রাবনের উদ্যোগে খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় দোয়া  বেতাগীতে বুড়ামজুমদার যুব সংঘের উদ্যোগ শতাধিক কর্মহীদের ঈদ সামগ্রী বিতরণ সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের ঈদ আনন্দ Friends for Life and FFL BD Foundation also distributed Eid clothes among the underprivileged in Barisal বরিশালে সুবিধাবঞ্চিতদের মাঝে ঈদ বস্ত্র বিতরণ করল ফ্রেন্ডস ফর লাইফ ও এফ এফ এল বিডি ফাউন্ডেশন জাতীয় পার্টির বরিশাল মহানগর, জেলা ও সদর উপজেলা কমিটির উদ্যোগে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এফ এফ এল বিডি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত সুবিধা বঞ্চিতদের মাঝে ঈদ সামগ্রী দিল এফ এফ এল বিডি ফাউন্ডেশন বরিশালে জাতীয় শ্রমিক পার্টির অসহায় ও কর্মহীনদের মাঝে ত্রান বিতরন

সড়কবাতি নষ্ট হওয়ায় প্রকৌশলীকে পেটালেন কাউন্সিলরের অনুসারীরা

আপডেট: এপ্রিল ২৮, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

যশোর জেলা প্রতিনিধি : সড়কবাতি নষ্ট হওয়ায় যশোর পৌরসভার বিদ্যুৎ বিভাগের এক প্রকৌশলীকে পিটিয়েছেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর রাজিবুল আলমের অনুসারীরা।
মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) দুপুরে পৌরসভায় ওই প্রকৌশলীর কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী সাইফুজ্জামান তুহিন পৌরসভার বিদ্যুৎ বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী। এ ঘটনার প্রতিবাদে পৌরসভায় ঘণ্টাব্যাপী কর্মবিরতি পালন করেছেন কর্মচারীরা।
যশোর পৌরসভা সূত্র জানিয়েছে, যশোর পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় বেশকিছু সড়কবাতি নষ্ট হয়ে গেছে। পৌরসভার বিদ্যুৎ বিভাগ পর্যায়ক্রমে বাতিগুলো মেরামত করছিল। ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সড়কবাতি মেরামত নিয়ে পৌরসভার বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীদের হুমকি দেন এবং গালিগালাজ করেন ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রাজিবুল আলমের অনুসারীরা। বিদ্যুত বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী সাইফুজ্জামান তুহিন তাদের বোঝানোর চেষ্টা করেন, মেরামতকাজ চলছে। পর্যায়ক্রমে দ্রুতই সব মেরামত করা হবে।
কিন্তু বিষয়টি নিয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে মঙ্গলবার দুপুরে উপসহকারী প্রকৌশলী সাইফুজ্জামান তুহিনের কার্যালয়ে যান কাউন্সিলর রাজিবুল আলমের অনুসারী বিপ্লবসহ আরও কয়েকজন। তারা প্রকৌশলী তুহিনকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন এবং তার ওপর চড়াও হন। সেই সঙ্গে তাকে মারপিট করেন। এ সময় ওই দফতরে অবস্থান করা পৌরসভার কর্মীরা তাদের ঠেকাতে গেলে তাদেরও মারতে উদ্যত হন মেয়রের অনুসারীরা।
উপসহকারী প্রকৌশলী সাইফুজ্জামান তুহিন বলেন, রাজিবুল ভাইয়ের লোকদের বোঝানোর চেষ্টা করেছি, কর্মীদের হুমকি-ধমকি, গালিগালাজ করার দরকার নেই। কোনো অভিযোগ থাকলে আমাকে জানাবেন। কিন্তু এতে ক্ষুব্ধ হয়ে তারা আমার গায়ে হাত তুলেছে।
এ ঘটনার পরপরই পৌর কর্মচারীরা কর্মবিরতি পালন শুরু করেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দুঃখপ্রকাশ করেন পৌর কাউন্সিলর রাজিবুল আলম। এরপর পৌর কর্মচারীরা তাদের কর্মবিরতি তুলে নেন।
যশোর পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রাজিবুল আলম বলেন, আমার অনুসারীরা পৌরসভার কর্মচারী কিংবা কর্মকর্তাকে মারধর করেনি। এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

 

Print Friendly, PDF & Email
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরিশাল খবর ২৪ প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।