১৭ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

বরিশালের রাস্তায় রাস্তায় ও লঞ্চঘাটে এফ এফ এল বিডি ফাউন্ডেশনের মাস্ক বিতরণ

আপডেট: এপ্রিল ৫, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

 

স্টাফ রিপোর্টার : এফ এফ এল বিডি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ফ্রেন্ডস ফর লাইফের সহযোগীতায় করোনাভাইরাস সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে রাস্তায় নামলেন এফ এফ এল বিডি ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা ও বিখ্যাত অভিনেতা এইচ এম হায়দার আলী।

করোনাভাইরাসের আতঙ্ক এখন বিশ্বজুড়ে। দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। করোনার প্রভাব পড়ছে সর্বত্র ।বরিশালের লঞ্চঘাট,চরকাউয়া খেয়াঘাটসহ বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে রিকশাওয়ালা, ফুটপাতের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী, পথশিশু ও শ্রমজীবী মানুষের মধ্যে মাস্ক বিতরণ করেন এফ এফ এল বিডি ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে বিখ্যাত অভিনেতা এইচ এম হায়দার আলী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন এফ এফ এল বিডি ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক মামুনুর রশীদ নোমানী,সম্বন্নয়ক নাজমুল হক,শোভন সাহা,তামিমসহ ফাউন্ডেশনের নেতৃবৃন্দ।

 


রোববার বিকেলে তিন শত মাস্ক বিতরণ করেন। এ ব্যাপারে অভিনেতা এইচ এম হায়দার আলী বলেন বলেন, এটি আমাদের ক্ষুদ্র প্রয়াস। আমি ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে আমাদের সামর্থ্যের মধ্যে থেকে যতটুকু সম্ভব ততটুকু করেছি। সাধারণ মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য কিছু করা বলতে পারেন।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে মাস্কটা ব্যবহার করলে সুবিধা হবে। আক্রান্ত মানুষ মাস্ক ব্যবহার করলে তার থেকে এটি ছড়ানোর সুযোগ কম। আবার একজন সুস্থ মানুষের নিরাপত্তার জন্য এটি ব্যবহার করলে ভালো।

হায়দার আলী বলেন, ‘আমরা যাঁরা মিডিয়াতে কাজ করি, তাঁদের কারও হাজার হাজার, কারও লাখ লাখ অনুসারী আছেন। তাঁদের বিশ্বাসও করেন অনুসারীরা। তাই মিডিয়ার লোকজন এ ধরনের সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করলে আতঙ্কিত সাধারণ মানুষের উপকার হবে। অনেক সাধারণ মানুষ মিডিয়ার মানুষকে অনুসরণ করে। তাই সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা ছড়িয়ে দেয়ার জন্য আমরা চেস্টা করে যাচ্ছি।


যাঁর যাঁর জায়গা থেকে যদি এভাবে কাজ করা হয়, করোনার আতঙ্ক অনেকটাই কেটে যাবে। হায়দার আলী বলেন, ফ্রেন্ডস ফর লাইফ ও এফ এফ এল বিডি ফাউন্ডেশন বরিশালসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সামাজিক ও মানবিক কর্মকান্ড করে আসছে ২০১৫ সাল থেকে।

Print Friendly, PDF & Email
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরিশাল খবর ২৪ প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।