২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

বরিশালে দায়িত্বরত ট্রাফিক সার্জেন্টের উপর হামলা, সাংবাদিক পরিচয়ে রক্ষা

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার: বরিশাল নগরীতে দায়িত্বপালনকালে ট্রাফিক সার্জেন্ট কাওসার হামিদের উপর অতর্কিত হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে তার ইউনিফর্ম ছিড়ে যায় এবং গুরুতর আহত হয়ে পড়েন। শনিবার বিকেলে নগরীর আমতলা মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এরপরে উপায়ান্তর না পেয়ে থানা পুলিশকে খবর দেন সার্জেন্ট কাওসার হামিদ। এদিকে এই সন্ত্রাসী কর্মকান্ড থেকে রেহাই পেতে তারা নিজেদেরকে সাংবাদিক পরিচয় দেয়। অথচ কোন আইডি কার্ড বা মোটরসাইকেলে এমন কিছু লেখা ছিলনা। পরে ঘটনাস্থলে ছুটে যান বরিশালের আন্ডারগ্রাউন্ড পত্রিকা দৈনিক তালাশের কথিত সম্পাদক সাবেক শিবির ক্যাডার মারুফ হোসেন। সে ঐ দুই সন্ত্রাসীকে তার পত্রিকার শিক্ষানবীশ পরিচয় দিয়ে তাদেরকে ছাড়ি নেয়ার চেস্টা করে। অবশেষে তাতে কাজ না হওয়ায় সন্ত্রাসীদের বাবা  ও স্বজনরা থানায় গিয়ে ছাড়াতে চেষ্টা করে। পরে ট্রাফিকের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা তাদেরকে সাংবাদিক মনে করে মুচলেকা রেখে ছেড়ে দেয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সার্জেন্ট সিগনাল দেয়ামাত্রই তার উপরে চটে যায় ঐ দুই যুবক। পরে তারা রাস্তার মধ্যে হোন্ডা আড় করে রাখে। এরপরে বক্স গিয়ে তারা দুজন মিলে সার্জেেন্টের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে ইউনিফর্ম ছিড়ে যায়।

বিএমপি ট্রাফিকের সার্জেন্ট কাওসার হামিদ জানান, রূপাতলী এলাকায় শ্রমিক-ছাত্র অসন্তোষের জেরে গাড়ি ভাংচুরের আশংকায় সেদিন আমতলা মোড় থেকে সকলকে না যাবার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছিল। এ সময় ঐ দুজনকে বাধা দিলে তারা রাস্তার মধ্যে হোন্ডা আড় করে রাখে এবং উচ্চবাচ্য করতে থাকে। এতে রাস্তায় ভীড় জমে গেলে আমরা হোন্ডাটি বক্সের কাছে নিয়ে যাই। বক্সের ভিতরে ঢুকে ঐ দুজন আমার উপরে অতর্কিত হামলা চালায়, এতে আমার ইউনিফর্ম ছিড়ে যায় এবং আমি আহত হয়ে পড়ি। এরপর থানা পুলিশ এসে নিয়ে যায়। পরে বিষয়টি তাদের সাথে সমাধান হয়।

সাংবাদিক নামধারী হাসিবুলকে ফোন দিল সে মুচলেকা দিয়ে রক্ষা পাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, আমি আইন অমান্য করে ভুল করেছি। তবে পুলিশের উপরে হামলা  ও ইউনিফর্ম ছিড়ে ফেলার ঘটনা অস্বীকার করেন।

Print Friendly, PDF & Email
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরিশাল খবর ২৪.কমে প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।