১৫ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

শিরোনাম
শ্রাবনের উদ্যোগে খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় দোয়া  বেতাগীতে বুড়ামজুমদার যুব সংঘের উদ্যোগ শতাধিক কর্মহীদের ঈদ সামগ্রী বিতরণ সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের ঈদ আনন্দ Friends for Life and FFL BD Foundation also distributed Eid clothes among the underprivileged in Barisal বরিশালে সুবিধাবঞ্চিতদের মাঝে ঈদ বস্ত্র বিতরণ করল ফ্রেন্ডস ফর লাইফ ও এফ এফ এল বিডি ফাউন্ডেশন জাতীয় পার্টির বরিশাল মহানগর, জেলা ও সদর উপজেলা কমিটির উদ্যোগে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এফ এফ এল বিডি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত সুবিধা বঞ্চিতদের মাঝে ঈদ সামগ্রী দিল এফ এফ এল বিডি ফাউন্ডেশন বরিশালে জাতীয় শ্রমিক পার্টির অসহায় ও কর্মহীনদের মাঝে ত্রান বিতরন

বরিশালে অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিলে দিশেহারা গ্রাহক, অফিস ঘেরাও

আপডেট: মে ২৮, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
বরিশালে ভূতুরে বিদুৎ বিলে ক্ষুদ্ধ হয়ে চাঁদমারী বিদুৎ অফিস ঘেরাও করেছে গ্রাহকরা। বৃহস্পতিবার সকালে বরিশাল নগরীর ১১ নং ওয়ার্ড চাঁদমারী বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-১ (ওজাপাডিকো) বিদুৎ অফিসে ভীর জমায় গ্রাহকরা।তারা অভিযোগ করে বলেন, প্রত্যেক গ্রাহকের বিল অতিরিক্ত করা হয়েছে। মিটার রিডিং না দেখেই বিদুৎ বিল বানানো হয়েছে। এছাড়া করোনাকালীন গত দুমাসে বিল না দেয়ায় সে বিল মিলিয়ে ভুতুরে বিল তৈরি করে গ্রাহকের মাঝে বিলি করা হয়েছে। যা সাধারন গ্রাহকের কাছে পরিশোধ করা কষ্টসাধ্য।কয়েকজন গ্রাহকের সাথে বলে জানাযায়, তারা বিদুৎ বিল সংশোধন করতে এসেছে। ইউনিট বেশি ধরে বিল দেয়া হয়েছে সেটা ঠিক করাতে এসেছি। বেশির ভাগ বিলে এমন সমস্যা দেখা দেয়ায় বিদুৎ অফিসে দেখা দিয়েছে জনস্রোত। তাছাড়া এখানে বসে নেয়া হচ্ছে বিদুৎ বিল। ফলে ভিড় জমাতে শুরু করেছে গ্রাহকরা। সেখানেও স্বজনপ্রীতি করে বিদুৎ বিল নেয়ার অভিযোগ ওঠে। অফিস কর্মকর্তা- কর্মচারীদের যোগসাযগে নেয়া হচ্ছে বিল। এদিকে বিল বেশি অতিরিক্ত দেয়ায় বিদুৎ অফিস ভবন ঘেরাও করেছে বিক্ষুব্ধ গ্রাহকরা।এক পর্যায়ে অফিস কর্মকর্তারা আগন্তক গ্রাহকদের সাথে খারাপ আচরন করে। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে গ্রাহকরা বিক্ষোভ শুরু করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে অফিসে থাকা পুলিশ সদস্যরা এগিয়ে আসে। এসময় এক গ্রাহকের উপর চড়াও হয় এক পুলিশ সদস্য।অভিযোগ করে মোঃ রুস্তুম হাওলাদার বলেন, করোনার কারনে কর্মহীন হয়ে পড়েছি। এর ভিতরে এত বিদুৎ বিল। তাছাড়া দুই তিন মাস বিদুৎ বিল একসাথে আসায় দেয়া খুবই কষ্টসাধ্য। তার উপরে বিল দিতে এসে অফিস কর্মচারীদের আচরন দেখে হতবাক।
এ ব্যপারে চাঁদমারী বিদুৎ অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আমজাদ হোসেন জানান,ব্যাংক বিদুৎ বিল গ্রহন না করায় বিদুৎ অফিসে বসেই নেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তাছাড়া করোনা ভাইরাসে দুমাস বিদুৎ বিল নেয়া বন্ধ থাকায় গ্রাহকদের বিল বেশি দেখাচ্ছে। ফলে সবাই তা সংশোধনের জন্য অফিসে ভির জমিয়েছে। বিদুৎ বিল অতিরিক্ত দেয়া হয়েছে বলে কেউ অভিযোগ করলে তা ঠিক করে দেয়া হচ্ছে। কেননা হাজার হাজার বিল করা হয় ।সেখানে কিছু ভুল হতেই পারে। তাই কোন গ্রাহক আসলে পরক্ষনে তা সংশোধন করে দেয়া হচ্ছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

Print Friendly, PDF & Email
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরিশাল খবর ২৪ প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।