১৪ই আগস্ট, ২০২০ ইং, শুক্রবার

শিরোনাম
সংবাদ প্রকাশের পর…….. বরিশালে অর্থনীতির শিক্ষক ইংরেজির প্রধান পরীক্ষক পদ থেকে বহিস্কার বরিশাল সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজের অর্থনীতির শিক্ষক বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের ইংরেজির প্রধান পরীক্ষক! মুজিব থেকে বঙ্গবন্ধু হয়ে ওঠায় রেণুর প্রেরণাঃ ‘কারাগারের রোজনামচা’য় বঙ্গমাতা আলহাজ্ব মোঃ আলাউদ্দিন স্মরনে মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত মির্জাগঞ্জে আওয়ামী লীগের অফিস ভাংচুর : গ্রেফতার ৩ শেখ কামালের ৭১তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বরিশাল সদর যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উদ্যোগে বৃক্ষ রোপণ চাল চুরির ঘটনায় ইউপি সদস্যসহ ২ জনের বিরুদ্ধে মামলা উজিরপুরে নিখোঁজের ৩ দিন পর ছাএের লাশ উদ্ধার বরিশালে নতুন করে ২৮ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ১

বরিশাল রয়েল সিটি হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিলের সম্ভাবনা

আপডেট: মে ২, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

মামুনুর রশীদ নোমানী : ২৭ এপ্রিল রয়েল সিটি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অবহেলা ও ভুলচিকিৎসায় সোনিয়া নামে ২৪ বছরের এক নারীর মৃত্যু হয়। যদিও স্বজনরা এটিকে পরিকল্পিত হত্যা বলে দাবী করেছেন। পোস্টমার্টেম শেষে পরদিন তাকে ঝালকাঠিতে তার নিজ বাড়িতে দাফন দেওয়া হয়। এরপর বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানায় রয়েল সিটি হাসপাতালের মালিক কাজি আফরোজা  ও সংস্লিষ্ট চিকিৎসক সহ ৭ জনের নামে মামলা হয়। এদিকে এ ঘটনায় বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা:বাসুদেব কুমার দাস ২৯ এপ্রিল ঘটনা তদন্তে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করে পুরো ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি জানান,তদন্ত কমিটির রিপোর্ট জমা হলে রিপোর্ট অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এতে প্রাথমিক সত্যতা পেলেই লাইসেন্স বাতিল সহ হাসপাতাল বন্ধের বিষয়ে শোকজ নোটিশ দেয়া হতে পারে। যথোপযুক্ত কারণ প্রদর্শন সহ জবাব না দিতে পারলে হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিল হবে। এদিকে মামলা দায়েরের পরই গা ঢাকা দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।  অফিসে আসেননি রয়েল সিটির এমডি কাজি আফরোজা। অন্যান্য আসামীদেরকেও প্রকাশ্যে দেখা যায়নি। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে যে কোন সময় গ্রেফতার হতে পারে আসামীরা।

কর্তপক্ষের অবহেলা ও ভুলচিকিৎসায় সোনিয়া নামে ২৪ বছরের এক নারীর মৃত্যু হয়। যদিও স্বজনরা এটিকে পরিকল্পিত হত্যা বলে দাবী করেছেন। পোস্টমার্টেম শেষে পরদিন তাকে ঝালকাঠিতে তার নিজ বাড়িতে দাফন দেওয়া হয়। এরপর বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানায় রয়েল সিটি হাসপাতালের মালিক আফরোজা কাজী ও সংস্লিষ্ট চিকিৎসক সহ ৭ জনের নামে মামলা হয়। এদিকে এ ঘটনায় বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা:বাসুদেব কুমার দাস ২৯ এপ্রিল ঘটনা তদন্তে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করে পুরো ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি জানান,তদন্ত কমিটির রিপোর্ট জমা হলে রিপোর্ট অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এতে প্রাথমিক সত্যতা পেলেই লাইসেন্স বাতিল সহ হাসপাতাল বন্ধের বিষয়ে শোকজ নোটিশ দেয়া হতে পারে। যথোপযুক্ত কারণ প্রদর্শন সহ জবাব না দিতে পারলে হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিলের সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে মামলা দায়েরের পরই গা ঢাকা দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। গতকাল অফিসে আসেননি রয়েল সিটির এমডি কাজী আফরোজা । অন্যান্য আসামীদেরকেও প্রকাশ্যে দেখা যায়নি। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে যে কোন সময় গ্রেফতার হতে পারে আসামীরা।

Print Friendly, PDF & Email
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরিশাল খবর ২৪ প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।