১২ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং, মঙ্গলবার

শিরোনাম
রাঙ্গাবালীতে স্কুল ছাত্রীর লাশ উদ্ধার গলাচিপা উপজেলার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষিকা নির্বাচিত হলেন মনিরা সুলতানা মুন্নি ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে বাউফলে শতাধিক ঘরবাড়ি বিধবস্ত অবশেষে বুলবুল’র কবলে পড়া নিখোঁজ গলাচিপার ১২ জেলের সন্ধান পেলো পরিবার গলাচিপায় ভাইয়ের প্রতিপক্ষ ভাই গলাচিপার গোলখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক পদে মনোনয়ন দাখিল করলেন নুর আলম জিকু ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে গলাচিপায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি গলাচিপা উপজেলার সকল ইউপি চেয়ারম্যানদের ঘূর্ণিঝড় “বুলবুল’”এর ক্ষয়-ক্ষতি কমাতে ও সতর্কীমূলক সকল ব্যবস্থা গ্রহণ এর নির্দেশ দিয়েছেন-মু.শাহীন শাহ্‌ ঘূর্ণিঝড় ”বুলবুল” মোকাবেলায় পটুয়াখালীতে ৬৮৯টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত, ১ লাখ ৬৫ হাজার মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে

কলাপাড়ায় কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতার সংবাদ সম্মেলন

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

 

এম এ ইউসুফ হাওলাদার( কলাপাড়া)ঃ

পটুয়াখালীর কলাপাড়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিস থেকে ৫ একর ভূমির লীজ সংক্রান্ত একটি নথি গায়েব’র লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এছাড়া আদালতের নিষেধাজ্ঞা সত্তে¡ও ভূমি অফিস তহশীলদার উপজেলার সোনাপাড়া মৌজার একটি মাছের ঘেরের রাস্তা কেটে দেয়ায় ২৫ লক্ষ টাকার মাছ নদীতে নেমে যাওয়ার অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় কলাপাড়া প্রেসক্লাব হলরুমে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক অ্যাডভোকেট শামিম আল সাইফুল সোহাগ এ সংবাদ সম্মেলন করেন।

এসময় কলাপাড়ায় কর্মরত প্রিন্ট, অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সংবাদ কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে সোহাগ জানান, ’বড় বালিয়াতলী ইউনিয়নের সোনাপাড়া মৌজায় ২০০৯ থেকে অদ্যবধি তার ১৫ একরের একটি মাছের ঘের আছে। যাতে তিনি চিংড়ি ও সাদা মাছ চাষ করেছেন। এজন্য ৫ একর জলমহল ভূমি অফিস থেকে তিনি মিস-কেস নং-০৬-কে-২০০৯-২০১০ মূলে ৩ বছরের লীজ নেন। পরে লীজ বর্ধিত করার জন্য অফিসে গেলে অফিস তালবাহানা করায় তিনি জানতে পারেন লীজের ফাইলটি অফিস থেকে গায়েব হয়ে গেছে। এছাড়া এই ৫ একর জমি ভুয়া বন্দোবস্ত বলে দাবী করে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে (এমপি-২০৬/১৭) মামলা করার পর সহকারী কমিশনার (ভূমি) তদন্ত রিপোর্ট দিলে নির্বাহী আদালত মামলাটি খারিজ করে দেয়।

’সোহাগ তার লিখিত বক্তব্যে আরাও জানান, ’ উক্ত ৫ একর জমি নিয়ে সিভিল মামলাও বিদ্যমান আছে এবং নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তাই তিনি উক্ত ৫ একর জমিতে কোন ধরনের কার্যক্রম করেন নাই। তা সত্তে¡ও ভূমি অফিসের তহশীলদার কামরুল ইসলাম সহ স্থানীয় নুর ছায়েদ, সোহেল, নুরমোহম্মদ ও নেছার মিয়া গত সপ্তাহে ঘেরের রাস্তা কেটে ফেলায় তার ২৫ লক্ষ টাকার মাছ নদীতে নেমে যায়। কামরুল ইসলাম প্রভাবহমান খাল বা নদী না হওয়ার পরও অনৈতিক ভাবে ঘেরের রাস্তা কেটে ক্ষতি করে এবং লীজের ফাইলটি অফিস থেকে গায়েব করে। এছাড়া যে রাস্তাটি কেটেছে সেটি ১৫০/২০০ পরিবারের লোকজনের চলাচলের একমাত্র রাস্তা ছিল বলে দাবী করেন তিনি।’ এ বিষয়ে কলাপাড়া ভূমি অফিসের তহশীলদার মো: কামরুল ইসলাম জানান,’আমি ছয় মাস হল এখানে এসেছি। আমার বিরুদ্ধে নথি গায়েবের যে অভিযোগ এনেছে তা মিথ্যা ও ভাওতাবাজি। এসি ল্যান্ড ও ইউএনও স্যারের সাথে কথা বললে সব জানতে পারবেন।’

কামরুল ইসলাম আরও জানান,’যথাযথ কর্তপক্ষের নির্দেশে স্থানীয় নারী ইউপি সদস্য মর্জিনা বেগম সহ শত শত মানুষের উপস্থিতিতে জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্য ঘেরের রাস্তা কাটা হয়েছে।’সহকারী কমিশনার (ভূমি) অনুপ দাশ সাংবাদিদের জানান, ’আমি কলাপাড়ায় যোগদানের পূর্ব থেকেই লীজ সংক্রান্ত নথিটি অফিসে পাওয়া যায়নি।

তাছাড়া আমরা ওই ৫ একর জমির উপর জেলা প্রশাসকের সাইন বোর্ড দিয়েছিলাম, যেটি পরবর্তীতে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এছাড়া আমরা এখন আর কোন লীজ দেইনা। সেক্ষেত্রে লীজ সংক্রান্ত নথিটি থাকলেও কোন লাভ হতনা।

Print Friendly, PDF & Email
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরিশাল খবর ২৪ প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।