২০শে জুলাই, ২০১৯ ইং, শনিবার

শিরোনাম
পটুয়াখালী বাহের মৌজ গ্রামে জমি জমার জেরে কৃষকের বসত ঘর ভাংচুর ২ভরি স্বর্ন ও ২৬ হাজার টাকা লুট তহসিলদার মনিরুজ্জামান শার্ট খুলে, গলায় গামছা জড়িয়ে লুঙ্গী পরা অবস্থায় অফিসে ডিউটি করেন রাঙ্গাবালীতে সাংবাদিকের ওপর হামলা ও ক্যামেরা ভাঙচুর বঙ্গবন্ধু’র শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন ও চারা রোপন উপলক্ষ্যে দশমিনায় অবহিত করন সভা মহিপুরে খাস জমিতে অবৈধ স্থাপণা নির্মাণের হিড়িক পটুয়াখালী পৌরসভা কার্যালয়ে তালা সেবা থেকে ‘বঞ্চিত পৌর নাগরিকবৃন্দ’ হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে পটুয়াখালীতে বিভিন্ন নেতৃবৃন্দের শোক দশমিনায় সড়ক দুর্ঘটনায় শিক্ষার্থী নিহত পটুয়াখালীর ভুরিয়া ও কমলাপুর ইউপি নির্বাচনে নির্বাচিত হলেন যারা

গলাচপায় সংখ্যালঘু পরিবারকে ভিটেবাড়ি ছাড়ার হুমকী

আপডেট: জুলাই ৩, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার রণগোপালদি ইউনিয়নের রণগোপালদি হাট গ্রামের ২নং ওয়ার্ডের নিতাই চন্দ্রশীল (৬২) ও বিজয় চন্দ্র শীল (৪২) এর পরিবারকে ভিটেবাড়ি ছাড়ার হুমকী দিয়েছে এলাকার প্রভাবশালীরা । এ বিষয়ে নিতাই চন্দ্র শীল প্রতিবেদককে জানান, আমরা দীর্ঘ ৩০ বছর যাবৎ এই জমিতে বসবাস করে আসছি। এই জমি নিরাঞ্জন গাইন ও নারায়ন বেপারীর কাছ থেকে সাড়ে ৫ কড়া জমি ক্রয় করি। আমাদের কাছে বিক্রি করার ১০ বছর পরে কবির তালুকদার ও দিলিপ দেবনাথের কাছে জমি বিক্রি করেন। কবির তালুকদার আমাদের বসতঘরের জমি ভোগ করতে চান। এ নিয়ে আমরা এখন বিপদে আছি। এ বিষয়ে বিজয় চন্দ্র শীল বলেন, এই জমি আমার নামে ও আমার ভাইয়ের ছেলে সঞ্জয় শীলের নামে দলিল হয়েছে। আমরা প্রায় ৩০ বছর পর্যন্ত এই জমি ভোগ দখল করছি। এই জমির ভিতর আমাদের ৩ টি টিনের দোচালাঘর ১ টি লন্ড্রির দোকান ও সেলুন আছে। প্রভাবশালীরা আমাদের ঘর ও সেলুন ভেঙ্গে ফেলতে বলে। এ বিষয়ে নিতাই চন্দ্র শীলের স্ত্রী কৃষ্ণা রাণী বলেন, এই জায়গায় আমরা যখন এসেছি তখন এখানে ডোবা ছিল, জঙ্গল ছিল পরিষ্কার করে এখানে বসবাস করছি। বি এন পি জামাত নেতা বেল্লাল হাং আমাদের বাসার সামনে এসে আমাকে অশালীন ভাষায় গালা গালি করে এবং আমাদের ঘর বাড়ী ভেঙ্গে ফেলবে বলে হুঙ্কার দেয়। এ বিষয়ে বেল্লাল হাং, কবির তাং এর কাছে জানতে চাইলে তারা বিষয়টি এড়িয়ে যায়। কোন উপায় না পেয়ে বিজয় চন্দ্র শীল গলাচিপা- দশমিনা জাতীয় সংসদ সদস্য পটুয়াখালী ৩ এস এম শাহজাদার কাছে লিখিত দরখাস্ত করেন। এস এম শাহাজাদা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ আজিজ মিয়া ও সাধারন সম্পাদক আনোয়ার হাং দু পক্ষকে ডেকে মিমাংশা করার নির্দেশ দেন। এ বিষয়ে আজিজ মিয়া ও আনোয়ার হাং বলেন, দু পক্ষকে ডাকা হয়েছে কয়েকদিনের মধ্যই শালীস হবে। এ বিষয়ে ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ মোখসেদ তালুকদার বলেন , ঘটনাটি আমি শুনেছি। আসলে প্রকৃতভাবে নিতাই শীল ও বিজয় শীলেরা বহু বছর পর্যন্ত ওই জায়গায় বসবাস করে আসছে। মঙ্গলবার সকালে বেল্লাল হাং কৃষ্ণা রানী শীলের বাসার সামনে গিয়ে কৃষ্ণা রাণীকে গালমন্দ করে বলে কৃষ্ণা রানী জানান।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network